in ,

বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন শুরু

‘মুজিব চিরন্তন’ প্রতিপাদ্যে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপন শুরু হয়েছে। বুধবার (১৭ মার্চ) বিকেল সাড়ে ৪টায় রাজধানীর প্যারেড স্কয়ারে ‘ভেঙেছ দুয়ার, এসেছ জ্যোতির্ময়’ শীর্ষক থিমে ১০ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার উদ্বোধন করা হয়।

বাঙালির ইতিহাসের অনন্য এই উদযাপনের মুহূর্তে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত আছেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। সম্মানিত অতিথি হিসেবে উপস্থিত রয়েছেন মালদ্বীপের প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম মোহামেদ সলিহ্।

অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত আছেন বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতির স্ত্রী রাশিদা খানম, মালদ্বীপের প্রেসিডেন্টের স্ত্রী ফাজনা আহমেদ, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী, বঙ্গবন্ধুর ছোট মেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছোট বোন শেখ রেহানাসহ সরকারের মন্ত্রিপরিষদ সদস্য, বিভিন্ন দেশের কূটনীতিক, দেশি-বিদেশি আমন্ত্রিত অতিথি, বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতাসহ সামরিক ও বেসামরিক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

শিশুশিল্পীদের সমবেত কণ্ঠে জাতীয় সংগীত এবং এর পরপরই শত শিশুশিল্পীর সংগীত পরিবেশনার মাধ্যমে উদ্বোধন অনুষ্ঠান শুরু হয়। প্রথমদিনের এ অনুষ্ঠান চলবে রাত ৮টা পর্যন্ত।

অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথির বক্তব্য অংশে প্রচারিত হচ্ছে চীনের রাষ্ট্রপতি শি জিনপিং, কানাডার প্রধানমন্ত্রী জাস্টিন ট্রুডো এবং জাপানের প্রধানমন্ত্রী ইউশিহিদে সুগার ধারণ করা ভিডিওবার্তা।

এরপর অনুষ্ঠানে উপস্থিত সম্মানিত অতিথি হিসেবে মালদ্বীপের রাষ্ট্রপতি ইব্রাহিম মোহামেদ সলিহ্ বক্তব্য দেবেন। মালদ্বীপের প্রেসিডেন্টের বক্তব্যের পর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ।

সম্মানিত অতিথিদের ‘মুজিব চিরন্তন’ শ্রদ্ধাস্মারক উপহার দেয়ার পর সভাপতি হিসেবে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করবেন। এর মধ্য দিয়ে জন্মশতবর্ষ ও স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী অনুষ্ঠানের প্রথম দিনের আলোচনাপর্ব শেষ হবে।

এরপর শুরু হবে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পর্বে ‘ভেঙেছ দুয়ার এসেছে জ্যোতির্ময়’ থিমের উপর ভিত্তি করে নির্মিত অডিও-ভিজ্যুয়ালে তুলে ধরা হবে জাতির পিতার সংগ্রামী জীবনের নানা অধ্যায়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাদ্যযন্ত্র সহযোগে অর্কেস্ট্রা মিউজিকের সঙ্গে গান পরিবেশন, বঙ্গবন্ধুকে প্রতীকী চিঠি উৎসর্গ, ‘মুজিব শতবর্ষের কার্যক্রম ফিরে দেখা’ শীর্ষক ভিডিও প্রদর্শন করা হবে।

এছাড়াও বঙ্গবন্ধুকে উৎসর্গ করে বন্ধুরাষ্ট্রের সাংস্কৃতিক পরিবেশনায় প্রথম দিনে আজকের আয়োজনে থাকছে ভারতের প্রখ্যাত নৃত্যশিল্পী মমতা শঙ্করের নেতৃত্বে একটি বিশেষ পরিবেশনা। বর্ণিল আতশবাজি ও লেজার শো এর মাধ্যমে শেষ হবে প্রথম দিনের জমকালো আয়োজন।

১৭ মার্চ থেকে ২৬ মার্চ পর্যন্ত ‘মুজিব চিরন্তন’ প্রতিপাদ্যে প্রতিদিন আলাদা থিমভিত্তিক আলোচনা অনুষ্ঠান, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, অডিওভিজ্যুয়াল এবং অন্যান্য বিশেষ পরিবেশনার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করা হবে।

ধনবাড়ীতে বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবার্ষিকী ও জাতীয় শিশু দিবস পালিত

আজ শুরু হচ্ছে বাঙালির প্রাণের মেলা