in

মাদ্রাসা সুপারের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্রের প্রতিবাদে এলাকাবাসীর মানববন্ধন

ময়মনসিংহের ফুলবাড়িয়া উপজেলার এনায়েতপুর ইউনিয়নের কাহালগাঁও ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওলানা এ কে এম আব্দুস সালামের বিরুদ্ধে অপপ্রচারের মাধ্যমে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে স্থানীয় একটি গোষ্ঠী। এমন অভিযোগের ভিত্তিতে উক্ত মাদ্রাসার শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সম্মেলন করেছে। ষড়যন্ত্রকারীদের বিরুদ্ধে শাস্তির দাবিতে আজ সোমবার (১২ এপ্রিল) এ কর্মসূচি পালন করেন তারা।

স্থানীয় সূত্র জানায়, গত ২১ ফেব্রুয়ারী আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস উদযাপনকে কেন্দ্র করে স্বার্থান্বেষী মহলের একটি চক্র মাওলানা এ কে এম আব্দুস সালামের বিরুদ্ধে অপপ্রচারে লিপ্ত হয়। অপপ্রচারের অংশ হিসেবে তারা একটি ভিডিও তৈরি করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করেন। যেখানে তারা দাবি করেন, আব্দুস সালাম সুপার মসজিদ ভেঙে দিতে চেয়েছেন এবং মসজিদ নিয়ে কটু কথা বলেছেন। খোঁজ নিয়ে জানা যায়, এমন অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন এবং বানোয়াট।

মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সভায় উপস্থিত ছিলেন, ৯নং এনায়েতপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মাওলানা আব্দুল মোন্নাফ, এনায়েতপুর ইউনিয়ন কৃষক লীগের সাবেক সভাপতি মৌলভী মোঃ ফজলুল হক, ৭নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি লিটন মারাগ, ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আব্দুল বারী মাস্টার, বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ ও সমাজসেবক মোহাম্মাদ নাসির উদ্দীন এম.এ, ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি মোঃ গোলাম হোসেন, ৯নং ওয়ার্ড কৃষক লীগের সাবেক সভাপতি মোঃ আদম আলী,কাহালগাঁও দক্ষিণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সভাপতি মোহাম্মদ হেলালুর রহমান, ৯নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ তোফাজ্জল হোসেন প্রমূখ।

মানববন্ধনে উপস্থিত বক্তারা বলেন, মাওলানা এ কে এম আব্দুস সালাম সমাজের একজন সম্মানিত ব্যক্তি। যারা তার বিরুদ্ধে মিথ্যা গুজব ছড়াচ্ছেন তারা একজন সম্মানিত ব্যক্তির মানহানীর অপচেষ্টা করছেন।

বক্তারা মাওলানা এ কে এম আব্দুস সালামের সম্পূর্ণ নির্দোষ দাবি করে তার বিরুদ্ধে উত্থাপিত ষড়যন্ত্রের তীব্র নিন্দা জানান। পাশাপাশি অপপ্রচারের সাথে জড়িতদের চিহ্নিত করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আওতায় আনার জন্য প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেন।

নামাজে ২০ জনের বেশি মুসল্লী নয়

সংগীত পরিচালক ফরিদ আহমেদের চির বিদায়