in , ,

মালয়েশিয়ায় অবৈধ অভিবাসীদের বৈধতা ঘোষণা

মালয়েশিয়ায় নতুন করে সেবা খাতের আরও চারটি উপ শাখায় অবৈধ অভিবাসী কর্মীদের বৈধতা দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে দেশটির সরকার। সরকারের এমন সিদ্ধান্তে খুশি প্রবাসী বাংলাদেশিরা। স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার (২২ এপ্রিল) এক বিবৃতিতে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী হামজাহ জয়নুদিন সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান।

অবৈধ অভিবাসী শ্রমিকদের বৈধতা দিতে তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপ ছাড়াই গত বছরের ১৬ নভেম্বর ‘রিক্যালিব্রেশন লেবার’ ও ‘রিক্যালিব্রেশন রিটার্ন’ নামে দুটি পরিকল্পনা হাতে নেয় মালয়েশিয়া সরকার। একটি অবৈধ অভিবাসী শ্রমিকদের বৈধভাবে কাজের নিয়োগ এবং অপরটি নিজ দেশে স্বেচ্ছায় ফেরত যাওয়া। আর প্রকল্প দুটি চলতি বছরের ৩০ জুন পর্যন্ত বলবৎ থাকবে।

তবে এসব অবৈধ কর্মীদের শুধুমাত্র নির্মাণ, উৎপাদন, চাষ ও কৃষি এ চারটি খাতে বাংলাদেশসহ ১৫টি দেশের অবৈধ অভিবাসী কর্মীদের বৈধতার জন্য অনলাইনে আবেদন করার কথা থাকলেও এখন থেকে সার্ভিস সেক্টরের চারটি সাব সেক্টরে যেমন হোলসেল ও রিটেইল, রেস্তোঁরা, কার্গো এবং পরিসেবার জন্য আবেদন করতে পারবেন তাদের নিয়োগকর্তারা।

একই সাথে মালয়েশিয়ায় বসবাসরত অবৈধ অভিবাসীরা চাইলে শর্তসাপেক্ষে নিজ দেশে ফিরে যেতে পারবেন। সরকারের এমন সিদ্ধান্তে খুশি প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

এদিকে বৈধকরণ ঘোষণার পর থেকেই রাজধানী কুয়ালালামপুরসহ পুরো মালয়েশিয়ায় এক শ্রেণির দালাল প্রতারণার ফাঁদ পেতেছে। তাদের বিষয়ে সতর্ক থাকার আহ্বান জানিয়েছেন কমিউনিটির নেতারা।

কমিউনিটি নেতা ও মালয়েশিয়া প্রবাসি ব্যবসায়ী মো. মামুন বিন আবদুল মান্নান বলেন, অনেকেই সার্ভিস সেক্টরের ভিসা করার আগ্রহী এবং অপেক্ষায় ছিল অবশেষে মালয়েশিয়া সরকার সেটির (‘রিক্যালিব্রেশন লেবার’ ও ‘রিক্যালিব্রেশন রিটার্ন’ নামে দুটি পরিকল্পনা) ঘোষণা করেছে।

কমিউনিটি নেতা ও মালয়েশিয়া প্রবাসি ব্যবসায়ী নাজমুল ইসলাম বাবুল বলেন, অযথা দালালদের খপ্পরে পড়বেন না, সঠিক মালিক খুঁজে নেবেন।

এছাড়া যে সকল অভিবাসী ২০১১ সালে এবং ২০১৬ সালে রি-হায়ারিং প্রোগ্রামে নাম নিবন্ধন করেও ভিসা পায়নি তারা এখন বৈধতার জন্য নিবন্ধিত হতে পারবেন। আর যারা তাদের কোম্পানি থেকে পালিয়ে অন্য কোথাও চলে গেছে তবে তাদের বিরুদ্ধে যদি কোন রিপোর্ট না থাকে তাহলে তারাও এ রিক্যালিব্রেশন কর্মসূচিতে নিবন্ধন গ্রহণ করতে পারবেন।

রিক্যালিব্রেশন প্রোগ্রাম নামে এই দুটি পরিকল্পনায় এখনও পর্যন্ত প্রায় ১ লাখ ৪৫ হাজার ৮শ’ ৩০ জন অনিবন্ধিত অভিবাসী অংশ নিয়েছেন। এর মধ্যে ৭২ হাজার ৩২৪ জন তাদের নিজ নিজ দেশে ফিরে যেতে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এবং ৭৩ হাজার ৫০৬ জন বৈধ হওয়ার জন্য নিবন্ধন করেছেন।

মালয়েশিয়া সরকারের নতুন এ সিদ্ধান্তের কারণে প্রবাসীদের মধ্যে কিছুটা স্বস্তি ফিরলেও দালালদের দৌরাত্ম ও নানামুখী সমস্যায় প্রবাসীরা গত বছরগুলোর মতো এবার যেন প্রতারিত না হয় সে বিষয়ে সতর্ক থাকার তাগিদ অভিবাসন বিশেষজ্ঞদের।

৫৪১ রানে প্রথম ইনিংস ঘোষণা

টাকা নিয়ে টিকা আটকানোর অধিকার সেরামের নেই: পাপন